গণিতের মৌলিক ধারণা

গণিতে অঙ্ক বা অংক হলো সংখ্যা প্রকাশক চিহ্ন। কোনো সংখ্যায় একটি অঙ্কের দুধরণের মান থাকে, নিজস্ব মান ও স্থানীয় মান। দশমিক সংখ্যা পদ্ধতিতে ০ থেকে শুরু করে ৯ পর্যন্ত দশটি অঙ্ক আছে। এছাড়াও রয়েছে আরো নানা ধরনের সংখ্যা পদ্ধতি যেমনঃ বাইনারি( দুই ভিত্তিক সংখ্যা পদ্ধতি), অক্টাল ( আট ভিত্তিক), হেক্সাডেসিমাল ( ষোলো ভিত্তিক)। তবে দশমিক সংখ্যা পদ্ধতিই বিশ্বে সবচেয়ে জনপ্রিয় সংখ্যা পদ্ধতি । বিস্তারিত about গণিতের মৌলিক ধারণা

গণিতের ইতিহাস

গণনা করা ছিল আদিমতম গাণিতিক কর্মকাণ্ড। আদিম মানুষেরা পশু ও বাণিজ্যের হিসাব রাখতে গণনা করত। আদিম সংখ্যা ব্যবস্থাগুলি প্রায় নিশ্চিতভাবেই ছিল এক বা দুই হাতের আঙুল ব্যবহার করে সৃষ্ট। বর্তমানের ৫ ও ১০-ভিত্তিক সংখ্যা ব্যবস্থার বিস্তার এরই সাক্ষ্য দেয়। মানুষ যখন সংখ্যাগুলিকে বাস্তব বস্তু থেকে পৃথক ধারণা হিসেবে গণ্য করা শিখল এবং যোগ, বিয়োগ, গুণ, ভাগ --- এই চারটি মৌলিক অপারেশন বা প্রক্রিয়া উদ্ভাবন করল, তখনই পাটীগণিতের যাত্রা শুরু হল। আর জ্যামিতির শুরু হয়েছিল রেখা ও বৃত্তের মত স বিস্তারিত about গণিতের ইতিহাস

বিজ্ঞানের ভাষা গণিত

আধনিক বিজ্ঞানের জগতে গণিতকে বলা হয় “বিজ্ঞানের ভাষা’। কারণ, আধুনিক বিজ্ঞানের অন্যতম মাধ্যম কম্পিউটারের প্রধান ভাষা হিসেবে ব্যবহার করা হয় বিভিন্ন গাণিতিক যুক্তি। ইংরেজি ভাষায় যাকে বলা হয় Mathematics। মূলত পরিমাণ, সংগঠন, পরিবর্তন ও স্থান বিষয়ক গবেষণাকেই গণিত বলা হয়ে থাকে। গণিতে সংখ্যা ও অন্যান্য পরিমাপযোগ্য রাশিসমূহের মধ্যকার সম্পর্ক বর্ণনা করা হয়। গণিতের সার্বজনীন ভাষা ব্যবহার করে বিজ্ঞানীরা একে অপরের সাথে ধারণার আদান প্রদান করেন। গণিত তাই বিজ্ঞানের ভাষা।
বিস্তারিত about বিজ্ঞানের ভাষা গণিত